হেলথ টিপস

চিকন স্বাস্থ্য মোটা করার টিপস

চিকন স্বাস্থ্য মোটা করার টিপস

লিকলিকে চিকন বা পাতলা শরীর আমাদের কারোই কাম্য হতে পারে না। এমন শরীর দেখতেও মানানসই নয়। তবে একটা কথা হল বেশী মোটা কিংবা শুকনা কোনোটাই আমাদের জন্য ভাল নয়; মাঝামাঝি বা একটু  ভাল স্বাস্থ্য সবার কাম্য। তাহলে এখন কথা হল চিকন স্বাস্থ্য মোটা করার উপায় কি? সত্যি এটা মজার একটা প্রশ্ন, সত্যিকার অর্থে স্বাস্থ্য প্রকৃতিগত ভাবে পাওয়া। আর চাইলেই যদি সব পাওয়া যেত তাহলে ইচ্ছেমত আমরা সবাই শরীরটাকে বদলে দিতে পারতাম, তবে ইহা সত্য যে, নিয়মিত শরীর চর্চার মাধ্যমে সব অসম্ভবকে সম্ভব করা যায়।

চিকন স্বাস্থ্য মোটা করার জন্য কিছু টিপস

১) ফাস্ট ফুড খাবারঃ  সফট ড্রিংক এবং ফ্যাটি খাবার খেলে স্বাস্থ্য মোটা হয়। এতে বেশি পরিমাণে ইনসুলিন থাকে। ইনসুলিন আমাদের হরমোন তৈরি করে। যার সাহায্যে আমাদের শরীরে র্কাবোহাইড্রটে, প্রোটিন এবং ফ্যাট জমে। যখন ফ্যাটি ফুডস্ খাবেন, তখন বেশি পানি পান করুন। সফট ড্রিংক নয়। এটা খেলে আপনি ফ্যাটি ফুড খেতে পারবেন না। এতে করে আপনার চিকন স্বাস্থ্য খুব তাড়াতাড়ি মোটা হয়ে যাবে।

২) এর্নাজি ফুডঃ  আপনি যদি নিয়মিত এর্নাজি ফুড খান তাহলে আপনি মোটা হবনে। একটা কথা হল আপনার শরীরে যদি এর্নাজি ফুড না থাকে তাহলে শরীরে শক্তইি থাকে না। মোটা হওয়া তো অনেক দূররে কথা। উদাহরণঃ আপনি যদি কখনো ব্যাটারতিে ল্যাপটপ কম্পউিটার চালাতে পারবনে না যদি প্লাগ না দনে। শরীরের ক্ষেত্রে ও তার ব্যতক্রিম নয়।

৩) অ্যালকোহল পান করুনঃ  এ্যালকোহল পান করলে আপনার শরীর মোটা হয়ে যাবে। এটা আপনার শরীরে মাংশপশেীতে হরমোন তৈরি করে। আপনার শরীরে যখন অতরিক্তি কালরি প্রয়োজন হয়। দিনের শেষে সন্ধ্যার দিকে তখন পরমিাণমত এ্যালকোহল পান করতে পারেন। কেননা এ্যালকোহলে প্রচুর পরিমাণে ক্যালরি পাওয়া যায়। রাতে এ্যালকোহল পান করে তাড়াতাড়ি রাতরে খাবার সেরে ঘুমযি়ে পড়ুন। তবে এই নয় যে, আপনি একবারে বেশি পরিমাণে এ্যালকোহল পান করে মাতাল হবেন। তাতে কিন্তু লাভের চেয়ে ক্ষতির পরিমান বেশি হবে।

৪) সময় মতো খাবারঃ  প্রতিদিন একটা সময় ধরে খাবার খাবেন। সকালে খুব তারাতারি ঘুম থকেে উঠে এক ঘন্টার মধ্যে সকালের নাস্তা শেষ করুন। সকালে প্রচুর পরমিাণে খেয়ে নিতে পারেন। র্বাগার, ভাজা খাবার, চিকেন, ফাস্ট ফুড, ব্রস্টে খেলেও ক্ষতি নইে।

৫) টেনশন মুক্ত থাকুনঃ  আপনি যদি টেনশন মুক্ত থাকেন তাহলে আপনার স্বাস্থ্য ভাল বা আপনি মোটা হতে পারবেন। কেননা আপনি যখন টেনশন এ থাকেন তখন দেখা যায় যে, আপনি কোন কাজ ঠিক মতো করতে পারেন না। এই জন্য টেনশন মুক্ত থাকা খুব জরুরী। তখন আপনি যে খাবারই খান না কেন আপনাকে মোটা বা স্বাস্থ্যবান হতে সাহায্য করবে।

৬) প্রচুর ফল খানঃ  ফল পুষ্টিকর খাবার। কেননা এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালরি। প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে ফল এবং ফলরে রস খান। ফলের তৈরি বিভিন্ন সিরাপ, গাম, জ্যাম, জ্যালি এগুলো বেশি বেশি করে খান। এতে জতেস্ত পরিমাণে ফ্যাট আছে যা আপনার স্বাস্থ্য মোটা করবে।

৭) পুষ্টিকর খাবারঃ  যদি নিয়মিত পুষ্টকির খাবার খান এবং রাতের ঘুম ঠিক রাখেন, তাহলে আপনি তাড়াতাড়ি আপনার স্বাস্থ্য মোটা করতে পারবেন। ঠিকমতো না ঘুমাতে পারলে আপনার শরীর প্রয়োজনীয় ক্যালরী ধরে রাখতে পারে না। রাতে খুব তাড়াতাড়ি খাওয়া শেষ করুন এবং তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ুন।

এই সব টিপস গুলো আপনি একবার চেষ্টা করে দেখুন না, ক্ষতি তো নেই। আপনি খুব দ্রুত মোটা হয়ে যাবেন। আপনি সত্যিকার অর্থে কল্পনাও করতে পারবেন না কিভাবে এত দ্রুত মোটা হওয়া সম্ভব। কারন যদি আপনি চিকন স্বাস্থ্য মোটা হয় বা আপনি স্বাস্থ্যবান হয়ে ওঠেন তাহলে আপনাকে দেকতে অনেক সুন্দর ও লাবণ্যময় লাগবে।

আমাদের অসুখ বিসুখ হওয়ার একটি প্রধান কারণ হচ্ছে স্বাস্থ্য সচেতনতার অভাব। আমরা স্বাস্থ্যসম্মত জীবন যাপন করার সঠিক উপায় সম্পর্কে অবগত নই। ফলে প্রতিনয়ত আমরা নানা ধরণের ভুল অভ্যাস গড়ে তুলছি যা আমাদের শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। এজন্য চাই সঠিক স্বাস্থ্য পরামর্শ বা হেলথ টিপস। ই হাসপাতাল আপনার সেই প্রয়োজন বোঝে এবং ব্লগে প্রতিনিয়ত হেলথ টিপস রিলেটেড পোষ্ট প্রদান করে থাকে। আপনার বিশেষ কোন ধরণের হেলথ টিপসের প্রয়োজন হলেও, আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। 

ই হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এক ঝাঁক নিবেদিত প্রান তরুণের হাত ধরে। প্রতিষ্ঠানটির মূল লক্ষ হচ্ছে সকল প্রকার স্বাস্থ্যসেবা সাধারণ দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়া, চিকিৎসা বিষয়ক সুপরামর্শ প্রদান করা, বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের অ্যাপয়েন্টমেন্টের ব্যবস্থা করে দেওয়া, প্রয়োজনে হাসপাতালে ভর্তি ও সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা, দুর্লভ ঔষধ সমুহের প্রাপ্যতা নিশ্চিত করা, সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন করার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে ই হাসপাতাল।

জরুরী মুহূর্তে স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার জন্য অথবা আপনার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যার সমাধান পাওয়ার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

ইমেইলঃ support@ehaspatal.com;  ওয়েবসাইটঃ http://ehaspatal.com/